বুধবার, ১৭ জানুয়ারী ২০১৮রেজি:/স্মারক - ০৫.৪২.৫১০০.০১৪.৫৫.০৩৭.১২-৫৬২
Menu

লিবিয়া টু ইতালি, নোয়াখালীর নিখোঁজ তিন যুবকের পরিবারে শোকেরমাতম

লিবিয়া টু ইতালি, নোয়াখালীর নিখোঁজ তিন যুবকের পরিবারে শোকেরমাতম

মঙ্গলবার, ১ সেপ্টেম্বর ২০১৫
নোয়াখালী প্রতিনিধি: দালালের মাধ্যমে সাগর পথে লিবিয়া থেকে ইতালি যাওয়া সময় নোয়াখালীর চাটখিলের জসিম, সোনাইমুড়ী মুন্নার সাথে নিখোঁজ রয়েছেন সেনবাগ উপজেলার গোলাম মাওলা টুনু নামের এক যুবক। তারা তিনজন সাগরে ডুবে মারা গেছে দালালের মাধ্যমে জানতে পারলেও তাদের ফিরে পাওয়ার আশায় বুক বেঁধে আছেন তাদের পরিবারের লোকজন। তাদের হারিয়ে পরিবার গুলোতে চলছে শোকের মাতম।
গত ৪ ও ১৮ আগস্ট ভূ-মধ্য সাগরে এ ঘটনা ঘটে। নিখোঁজ গোলাম মাওলা টুনু (৩০) নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার ছাতারপাইয়া ইউনিয়নের চিলাদী গ্রামের গোলাম ছারোয়ার মিয়ার ছেলে। ৫ ভাই ও ৪ বোনের মধ্যে তৃতীয় গোলাম মাওলা টুনু। ইউনুছ আলী হৃদয় (২) নামের তার একটি সন্তান রয়েছে।
সোমবার (৩১ আগস্ট) সকালে কথা হয় নিখোঁজ টুনুর বাবা গোলাম ছারোয়ার মিয়ার সাথে। তিনি জানান, পরিবারের সচ্ছলতা আনতে ২০১৩ সালের এপ্রিল মাসে বাংলাদেশ থেকে লিবিয়া যান তার ছেলে টুনু। এরপর থেকে তিনি লিবিয়ায় রং মেস্ত্রীরির কাজ করত সে।
সর্বশেষ গত ১৪ আগস্ট শুক্রবার দুপুরে তার মোবাইলে কল দিয়ে টুনু বলে, ‘বাবা দোয়া করবেন সবাইকে দোয়া করতে বলবেন আমি লক্ষ্মীপুরের দালাল আব্দুল কাদেরের মাধ্যমে সাগর পথে ইঞ্জিন চালিত নৌকাযোগে ইতালি যাব।’ তবে কবে যাবে তা নিশ্চিত করে টুকু তাকে কিছু বলেনি।
তিনি আরো বলেন, গত ১৯ আগস্ট বুধবার রাতে টুনুর সহকর্মীদের মাধ্যমে জানতে পরেন টুনুসহ ৩১২জন যাত্রী নিয়ে ভূ-মধ্য সাগরে তাদের নৌকাটি ডুবে গেছে। যার মধ্যে টুনুসহ ৫০জন যাত্রী সাগরে ডুবে মারা গেছে। তবে তার ছেলে টুনুর লাশের কোন সন্ধান তাদের দিতে পারেনি তার সহকর্মী ও দালালরা।
নিখোঁজ গোলাম মাওলা টুনুর স্ত্রী রাবেয়া আক্তার আখিঁ জানান, গত ১০ আগস্ট রাতে সর্বশেষ তার তার সাথে মোবাইলে টুনুর কথা হয়। কিন্তু ওই সময় সে ইতালি যাওয়ার কথা তাকে কিছু বলেনি। এখন তিনি শুনতে পাচ্ছে সাগর পথে ইতালি যাওয়ার পথে তার স্বামী নিখোঁজ রয়েছেন।
প্রসঙ্গত, একইভাবে লিবিয়া থেকে সাগর পথে ইতালি যাওয়ার পথে গত ৪ আগস্ট মঙ্গলবার ভূ-মধ্য সাগরে ঝড়ের কবলে পড়ে নৌকা ডুবে নিখোঁজ হয় নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলার খিলপাড়া ইউনিয়নের অমরপুর গ্রামের রুহুল আমিনের ছেলে আশরাফুল আমিন জসিম (৩২) এবং ১৮ আগস্ট মঙ্গলবার সেনবাগের গোলাম মাওলা টুনুর সাথে নৌকা ডুবির ঘটনায় নিখোঁজ রয়েছেন নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী উপজেলার চাষীরহাট ইউনিয়নের কাবিলপুর গ্রামের আমিন উদ্দিন বাড়ীর মৃত রফিক উল্ল্যার ছেলে ফখরুল ইসলাম মুন্না (২৬)।
নিখোঁজদের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, নৌকা ডুবির ঘটনার পর থেকে ৩১ আগস্ট সোমবার পর্যন্ত তাদের তিনজনের মধ্যে কারো কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি। 

আর্কাইভ