মঙ্গলবার, ১৬ জানুয়ারী ২০১৮রেজি:/স্মারক - ০৫.৪২.৫১০০.০১৪.৫৫.০৩৭.১২-৫৬২
Menu

রামগতির ইউপি নির্বাচনে বিক্ষিপ্ত সংঘর্ষে আহত-১০, বসতঘর ভাংচুর ৮

রামগতির ইউপি নির্বাচনে বিক্ষিপ্ত সংঘর্ষে আহত-১০, বসতঘর ভাংচুর ৮

রামগতি-কমলনগর প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুরে বিক্ষিপ্ত সংঘর্ষ, ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও বসতঘর ভাংচুরের মধ্য দিয়ে রামগতির আলেকজান্ডার ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনের ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। জাল ভোট দেওয়ার চেষ্টায় নারীসহ ৫জনকে আটক করা হয়।

বৃহস্পতিবার (২৮ ডিসেম্বর) দুপুরে ভোট চলাকালে ৮ নম্বর ওয়ার্ড পশ্চিম চর আলেকজান্ডার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের বাহিরে ভোটারদের প্রভাবিত করাকে কেন্দ্র করে ইউপি সদস্য প্রার্থী কবির বাবুল ও নুর ছলেয়মান সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনায় ঘটে। এতে উভয়পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়।
এসময় কেন্দ্রের আশে পাশের ৮টি বসতঘর ভাংচুর করা হয়। বেশ কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করে উভয় পক্ষের সমর্থকরা। এতে ভোটার ও স্থানীয়দের মাঝে চরম আতঙ্ক বিরাজ করে।

স্থানীয়রা জানান,  নুর ছলেমান হাওলাদারের সমর্থক ও কবির বাবুল হাওলাদারের সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এক পর্যায়ে লাঠি সোটা ও দামা হাতে নিয়ে দলবেঁধে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে উভয়পক্ষ। এসময় আব্দুল হাওলাদার বাড়িসহ আশ পাশের ৮টি বসত ঘর ভাংচুর করা হয়। পরে তাৎক্ষণিক প্রশাসনের তৎপরতায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।

আহতরা হলেন ফয়েজ আহমদ, বিবি আরজু, আজুহা খাতুন, বিবি ছকিনা, বিবি আপনা,  আব্দুল মন্নানসহ অন্তত ১০জন। আহতদের  রামগতি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ প্রাথমিকভাবে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

এছাড়া অন্য কেন্দ্র গুলোতে জাল ভোট দেয়াসহ বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির অভিযোগে আবু জাহের, ফাহিমা আক্তার ও আছমা আক্তারসহ ৫ জনকে আটক করেছেন আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।

উপজেলা রির্টানিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোঃ আরিফুল ইসলাম জানান, উচ্চ আদালতের আদেশে ৩ নম্বর ওয়ার্ডের চেয়ারম্যান, সাধারণ সদস্য ও নারী সদস্য পদে ভোট গ্রহণ স্থাগিত ছিলো। অন্য ৮ ওয়ার্ডে সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। বিকেল ৫টায় এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ভোট গনণা চলছে।

প্রঙ্গগত, লক্ষ্মীপুরের রামগতি উপজেলার আলেকজান্ডার ইউনিয়ন পরিষদের সাধারণ নির্বাচন সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়ে বিকেল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে চলে। বিচ্ছিন্ন দু’একটি ঘটনা ছাড়া শান্তিপূর্নভাবে ভোট গ্রহণ শেষ হয়েছে। এসময় প্রশাসনের তৎপরতার ছিলো লক্ষনীয়।

আর্কাইভ