মঙ্গলবার, ১৬ জানুয়ারী ২০১৮রেজি:/স্মারক - ০৫.৪২.৫১০০.০১৪.৫৫.০৩৭.১২-৫৬২
Menu

কমলনগরে নদীভাঙ্গন রোধে নির্মিত তীররক্ষা বাঁধ প্রকল্প পরিদর্শন

কমলনগরে নদীভাঙ্গন রোধে নির্মিত তীররক্ষা বাঁধ প্রকল্প পরিদর্শন

এমআর পাটওয়ারী, কমলনগর থেকে: লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে নদীভাঙ্গন রোধে নির্মিত তীররক্ষা বাঁধ প্রকল্প পরিদর্শন করেছেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের জনপ্রশাসন মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্য ও লক্ষ্মীপুর -৪ (রামগতি কমলনগর) আসনের সাংসদ বীরমুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মোহাম্মদ আবদুুল্লাহ আল মামুন (এমপি) এবং ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান ওয়েস্টান ইঞ্জিনিয়ারিং প্রাইভেট লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক বশির আহম্মেদ।

শুত্রবার (২৫অক্টোবর) দুপুড়ে উপজেলার সাহেবেরহাট ইউনিয়নের মাতাব্বরনগর সংলগ্ন ভাঙ্গনরক্ষা বাঁধ প্রকল্পে এ পরিদর্শন করা হয়।

পরিদর্শনে আমন্ত্রিত অতিথি ছিলেন ট্রাস্ট ব্যাংক এর এক্সানাল ভিপি মোহাম্মদ বিশারত হোসেন, লক্ষ্মীপুর পানিউন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী গাজী ইয়ার আলী, রামগতি উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল ওয়াহেদ, ওয়েস্টান ইঞ্জিনিয়ারিং প্রাইভেট লিমিটেড এর ডেপুটি চীপ মোহাম্মদ কামরুজ্জাহান, চীপ ম্যাকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার ব্রিগ্রেডিয়ার জেনালের (অব:) গোলাম আম্ববিয়া।

বাঁধ পরিদর্শনে অন্যান্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন কমলনগর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোহাম্মদ সফিক উদ্দিন, জেলাপরিষদ সদস্য মো. গিয়াস উদ্দিন মোল্লা, সাহেবেরহাট ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আবুল খায়ের, হাজিরহাট ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মোহাম্মদ নিজাম উদ্দিন, তোরাবগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান ফয়সল আহম্মেদ রতন, ছাত্রলীগ সভাপতি মোহাম্মদ মাঈন উদ্দিন মাঈনসহ প্রমূখ।

ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান ওয়েস্টান ইঞ্জিনিয়ারিং প্রাইভেট লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক বশির আহম্মেদ তাঁর বক্তব্যে বলেন, আমার কোম্পানি এবং এই কমলনগর বাসির সহযোগিতায় অত্যন্ত সুন্দর ও সুচারুভাবে অনেক প্রতিকূলতার মাঝে ১কিলোমিটার তীররক্ষা বাঁধ প্রকল্পের কাজ শেষ হয়েছে।

তিনি বলেন, এই ভাঙ্গনরক্ষা প্রকল্প ছাড়াও আমরা কমলনগর বাসির কল্যাণে একটি বিশাল শিল্প প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলার উদ্যোগ নিয়েছি। এতে কমলনগর বাসির চাকুরী, কর্মসংস্থান, আর্থিক স্বচ্ছলতাবৃদ্ধি, মালামাল সাúøাই, জীবনমান উন্নয়নে ব্যাপক ভূমিকা পালন করবে।

তিনি আরো বলেন, আমরা আগে ম্যানুয়ালী ব্লক তৈরী করেছি, এখন আরো গুনগত মানসম্পন্ন, সঠিক মাননিয়ন্ত্রিত মেশিনম্যাড ব্লক তৈরী করার উদ্যোগ নিয়েছি। এজন্য এখানে একটি ইন্ডাষ্ট্রি স্থাপনের কাজ শুরু করেছি।

শুধু এই তীররক্ষা বাঁধ প্রকল্পই নয় সরকারের যে কোন প্রকল্প বাস্তবায়নে এই শিল্পপ্রতিষ্ঠান গুরুত্ব পূর্ণভূমিকা পালন করবে। এখানকার ফ্যাক্ট্যরী থেকে প্রোডাকশনকৃত ব্লক এ জেলার শতভাগ চাহিদা মিটিয়ে ভোলা, বরিশালসহ সমগ্র বাংলাদেশে পৌঁছবে এবং নদীভাঙন রোধে কার্যকর ভূমিকা পালন করবে। তবেই আমাদের মূল উদ্দেশ্য বাস্তবায়ন হবে।

স্থানিয় সংসদ সদস্য মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মামুন এমপি বলেন, নদীভাঙ্গ রোধের ২য় প্রকল্পের (রামগতি-কমলনগর ১৬কিলোমিটার) কাজ অল্প সময়ের মধ্যে একনেক বৈঠকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখহাসিনা অনুমোদন করবেন বলে জানান।

আর্কাইভ