সোমবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৭রেজি:/স্মারক - ০৫.৪২.৫১০০.০১৪.৫৫.০৩৭.১২-৫৬২
Menu

কমলনগরে মুক্তিযোদ্ধার সন্তানকে হত্যা মামলায় ফাঁসানোর অভিযোগ; সংবাদ সম্মেলন

কমলনগরে মুক্তিযোদ্ধার সন্তানকে হত্যা মামলায় ফাঁসানোর অভিযোগ; সংবাদ সম্মেলন

সাম্প্রতিক স্বদেশ ডেক্স: লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ মহসিন মাস্টারের ছেলে মাহমুদুল হাছান হিরুকে একটি হত্যা মামলায় উদ্দেশ্যমূলক অভিযুক্ত করে হয়রানির অভিযোগ উঠেছে। এ মামলার বিচার বিভাগীয় তদন্তের দাবি জানিয়ে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ করেছে পরিবারটি। এ নিয়ে বুধবার (২০সেপ্টেম্বর) দুপুরে কমলনগর প্রেসক্লাব এ সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এ দাবি জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে রেবেকা মহসিন জানান, উপজেলার চর জাঙ্গালীয়া গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা স্বামী মোহাম্মদ মহসিন ২০১২ সালে মারা যান। তিনি হাজিরহাট মিল্লাত একাডেমীর শিক্ষক ছিলেন। দীর্ঘদিন ধরে তার স্বামীর সৎ ভাই (দেবর) মোহাম্মদ ছানাউল্যাহ তহশিলদারের সাথে জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। তার স্বামীর মৃত্যুর পর সম্পত্তি দখল করার জন্য ছানাউল্যাহ তাকে বিয়ের প্রস্তাব দেয়। এতে তিনি রাজি না হওয়ায় নানা ষড়যন্ত্রে মেতে উঠে।

২০১৬ সালের ২৯মে চরলরেঞ্চ এলাকার মুক্তিযোদ্ধা ক্লাবের পিয়ন মোহাম্মদ মাকসুদ (২৬) নিখোঁজ হয়। ঘটনার ৮দিন পর ছানাউল্যার বাড়ির সেফটি ট্যাংকের ভিতর থেকে পুলিশ তার গলিত মরদেহ উদ্ধার করে। এঘটনায় নিহতের ভাই বেলাল হোসেন ওই দিন রাতে অজ্ঞাতনামা ৪-৫জনকে আসামি করে কমলনগর নথানায় মামলা দায়ের করেন।

ওই মামলার এজাহারে তার ছেলের নাম ছিল না। পরবর্তীতে ছানাউল্যাহসহ একটি কুচক্রি মহল পুলিশকে ম্যানেজ করে তার ছেলে মাহমুদুল হাসান হিরুকে ৩নম্বর অভিযুক্ত করে আদালতে চুড়ান্ত প্রতিবেদন (চার্জশীট) দাখিল  করায়।

তিনি আরও বলেন, হত্যার ঘটনার সাথে আমার ছেলে সম্পৃক্ত নয়। আমিও এ হত্যাকান্ডে জড়িতদের বিচার চাই। হত্যার রহস্য উদঘাটনে জব্দ করা আলামতের পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে জুুডিশিয়াল তদন্ত করলেই প্রকৃত ঘটনার সত্যতা উম্মোচন হবে। এজন্য তিনি প্রশাসনের হস্তক্ষেপ চেয়েছেন।

আর্কাইভ