সোমবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৭রেজি:/স্মারক - ০৫.৪২.৫১০০.০১৪.৫৫.০৩৭.১২-৫৬২
Menu

সেনবাগে যৌতুকের জন্য গৃহবধূকে জখম

সেনবাগে যৌতুকের জন্য গৃহবধূকে জখম

নোয়াখালী জেলা প্রতিনিধি: নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার বীজবাগ ইউনিয়নে যৌতুকের টাকা না পেয়ে শান্তনা আক্তার এক গৃহবধূকে ধারালো বস্তু দিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখমের অভিযোগ পাওয়া গেছে।
 
ঘটনায় মঙ্গলবার (৮আগস্ট) সন্ধ্যায় সেনবাগ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন ভিকটিম।

ভিকটিম ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, চার বছর আগে পারিবারিক ভাবে  বীজবাগ ইউনিয়নের কাজিরখিল গ্রামের শাহদাত হোসেনের সাথে একই এলাকার শরিয়ত উল্যার মেয়ে শান্তনা আক্তারের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে বিভিন্ন সময় যৌতুকের টাকার জন্য শাহদাত হোসেন, শাশুড়ী বিবি আয়েশা, দেবর মোশারেফ হোসেন, সোহাগ, ননদ বিবি আমেনা ও প্রাহিমা  তাকে প্রায় সময় মারধর করত।

পরে এ অব্স্থা দেখে অনেকটা নিরুপায় হয়ে শান্তনার পরিবার ধারদেনা করে ২ দফায় ২লাখ টাকা তার শশুরের পরিবারকে দেয়। এরই মধ্যে গত বছর শান্তনার বাবা শরিয়েত উল্যা মৃত্যু বরন করেন। এর পর থেকে শান্তনার উপর নেমে আসে যন্ত্রনার এক পাহাড়। প্রতিনিয়ত শাররিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন মাত্রা বাড়ী তুলে শশুরের পরিবারের লোকজন।
এরই সূত্র ধরে গত ৬আগস্ট রোববার সন্ধ্যায় শাহদাতের পরিবারের লোকজন টাকার জন্য শান্তনাকে ধারালো বস্ত দিয়ে জখম করতে থাকে। এসময় শান্তনার ছোট ভাই মেহেদী বাড়ী যাওয়ার পথে বোনের বাড়ীতে কান্নার শব্দ শুনে এগিয়ে এসে বোনের অবস্থা দেখে বাড়ীতে গিয়ে পরিবারের লোকজনকে অবগত করে।

পরে খবর পেয়ে পরিবারের লেকজন এসে গুরুত্বর আহত অবস্থায় শান্তনাকে উদ্ধার করে সেনবাগ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

আর্কাইভ