মঙ্গলবার, ১৬ জানুয়ারী ২০১৮রেজি:/স্মারক - ০৫.৪২.৫১০০.০১৪.৫৫.০৩৭.১২-৫৬২
Menu

কমলনগর উপজেলা আ’লীগ সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে মামলা; সংবাদ সম্মেলন

কমলনগর উপজেলা আ’লীগ সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে মামলা; সংবাদ সম্মেলন

কমলনগর (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও পাটারীরহাট ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট নুরুল আমিন রাজু’র বিরুদ্ধে একটি অসহায় পরিবারে ওপর হামলা, ভাঙচুর ও বসতঘরে তালা ঝুলিয়ে দেওয়ার অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে। ওই আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করায় হুমকি দিয়ে আসছে তার লোকজন। এঘটনার প্রতিকার চেয়ে ভুক্তভোগি পরিবার সংবাদ সম্মেলন করে।

সোমবার (৩ জুলাই) বিকালে কমলনগর কমলনগর প্রেসক্লাবে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে। এর আগে শনিবার (১জুলাই) রাতে রাবেয়া বেগম বাদী হয়ে আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট নুরুল আমিন রাজুসহ ২১জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

মামলার বাদী রাবেয়া বেগম আওয়ামী লীগ নেতা নুরুল আমিন রাজু’র গাড়ি (ব্যক্তিগত মাইক্রোবাস) চালক মো. ফেরদাউসের ভাবি ও উপজেলার পাটারীহাট ইউনিয়নের বাসিন্দা আলমগীর হোসেনের স্ত্রী।

সংবাদ সম্মেলনে গাড়ি চালক আহত ফেরদাউস জানান. চলতি বছরের ফেব্রুয়ারী মাস থেকে ২০ হাজার টাকা মাসিক বেতনে আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট নুরুল আমিন রাজুর গাড়ি চালক হিসেবে চাকুরী করি। মাসিক বেতন ২০ হাজার টাকা হলেও মাসে মাত্র ২হাজার টাকা করে দিতেন। অবশিষ্ট টাকা ঈদের আগে (২৫ জুন) দেওয়ার কথা থাকলেও তা পরিশোধ করেননি। আমি টাকা চাইলে গালমন্দ করে গাড়ির চাবি নিয়ে যায়।
বিষয়টি এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিদেরকে জানাইলে ওই আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট নুরুল আমিন রাজু ক্ষিপ্ত হয়ে ঈদের পরের দিন (২৭জুন মঙ্গলবার) রাতে তার লোকজন নিয়ে আমার বাড়িতে হামলা ও ভাঙচুর করে। এ সময় তার লোকজন স্বর্ণালংকার ও নগদ টাকা লুট করে তাদেরকে বসতঘর থেকে বের করে ঘরের দরজায় তালা ঝুলিয়ে দেয়। এসময় বাধা দিলে গাড়ি চালক আমিসহ, বাবা আবু তাহের ও ভাই মাইন উদ্দিনকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে জখম করে। পরে স্থানীয়রা আমার বাবা আবু তাহেরকে কমলনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করি। আমি ও আমার ভাই প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছি।
সংবাদ সম্মেলনে ফেরদাউসের ভাই মো. ইউছুফ বলেন, আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট নুরুল আমিন রাজু ও তার লোকজনের ভয়ে আমরা বাড়ি ছাড়া। পরিবারের সদস্যদের নিয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছি। আমরা এর সুষ্ঠু প্রতিকার চাই। গাড়ি চালক ফেরদাউস ও ইউছুফ পাটওয়ারীর হাট ইউনিয়নের বাসিন্দা আবু তাহেরের ছেলে।

আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট নুরুল আমিন রাজু অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, গাড়ি চালক ফেরদৌস আমার বাড়িতে থেকে স্বর্ণালংকার ও টাকা নিয়ে পালিয়ে গেছে। তার বাড়িতে হামলা ও ভাঙচুর ঘটনা সত্য নয়। একটি মহল আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে।

কমলনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আকুল চন্দ্র বিশ্বাস মামলা হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

আর্কাইভ